হজ কী ও কখন

হজ্জের গুরুত্ব ও তাৎপর্য পবিত্র হজ ইসলামের মহান একটি রূকন বা স্তম্ভ। আল্লাহ তায়ালা কুরআন মাজীদে পরিস্কার ভাষায় সামর্থবান মুসলিম নর-নারীর উপরে জীবনে একবার এ মহান ইবাদতটি হজ করে দিয়েছেন। তিনি বলেন- অর্থ : মানুষের মধ্যে যে ব্যক্তি (ঈমানদার) কাবাঘর পৌঁছতে সক্ষম হয় তার উপর আল্লাহর প্রাপ্য হচ্ছে সে যেন হজ করে। (আল-ইমরান-৯৬) মূলত এই হজ্জের মাধ্যমেই মহান আললাহর সামনে বান্দাহর গোলামীর চিত্রপূর্ণতা পায়। একজন হাজীর যাবতীয় কর্মকান্ডে বিশেষত তাঁর ইহরাম অবস্থায় চূড়ান্ত বিনয় ফুটে উঠে। বাড়ী-ঘর, আত্মীয়-স্বজন, ধন-সম্পদ, আভিজাত্য-কৌলিন্য সবকিছু পেছনে ফেলে মাত্র দুইপ্রস্থ সাদা কাফন সদৃশ ইহরামের পোষাক গায়ে জড়ায়ে খালি মাথায় খোল পায়ে দূর-দূরান্ত থেকে, বলতে বলতে যখন পেরেশান হয়ে কাবা মুখে ছুটতে থাকে তখন মনে হয় মাহবুবের ডাকে সাড়া দিয়ে গাপল প্রেমিক দুনিয়ার সব কিছু তুচ্ছ করে ঊর্ধ্বশ্বাসে চলছে এক মহামিলনের প্রচন্ড আকর্ষণে। কাবা ঘরে পৌঁছে যখন সে এর চতুষ্পার্শ্বে তাওয়াফ করতে থাকে তখন মনে হয় পাগল পারা প্রেমিক তাঁর মাহবুবকে হন্যে হয়ে খুঁজছে। কখনো হজরে আসওয়াদে চুমু খায়, কখনো মুলতাযামে বুক-মাথা ঠেকিয়ে অসহায়-এতীমের মত অঝোর ধারায় ফুফিয়ে-ফুফিয়ে কাঁদতে থাকে, কখনো ভিখারীর ন্যায় মীযাবে রহমতের নীচে দাঁড়িয়ে থাকে, আবার মাক্বামে ইবরাহীমের পেছনে সেজদায় লুটিয়ে পড়ে, ছাফা মারওয়ার মাঝে ছুটোছুটি করে, মাবুদের সন্তুষ্টির জন্য সব ছেড়ে চলে যায় মিনায়, আবার সে ছুটে চলে আরাফায়, সেখান থেকে খোলা আকাশের নীচে পাথুরে জমির উপর রাতের অন্ধকারে মুযদালিফায় বসে মনের আবেগে ডাকতে থাকে মহান মাবুদকে। তাঁকে রাজী করার জন্য চিরদুশন শয়তানকে মিনায় পাথর মেরে অপদস্ত করে, সর্বোপরি সকল অহংকার-অহমিকা, ব্যক্তিত্ব জলাঞ্জলী দিয়ে মাথা মুন্ডিয়ে চরম বিনয় সহকারে হাজির হয় মাবুদের দরবারে। গোলামী প্রকাশের আর কি বাকী থাকে? এ জন্যই হজ সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত, সকল ইবাদতের অনুপম সমন্বয়। পৃথিবীর সকল দেশের সকল ভাষার সকল বর্ণের মুসলিম নর-নারী, আবালবৃদ্ধবর্ণিতা যখন আরাফাতে, মুযদালিফায়, মীনায়, কাবায় একই পোষাকে একই ভাষায় লাব্বাইকা ধ্বনিতে মুখরিত করে তোলে তখন বিশ্ব জগত এক অনন্য দৃশ্য অবলোকন করে। এ দৃশ্য নয়ন জুড়িয়ে দেয়, শ্রদ্ধা ভালবাসা আর আবেগের জোয়ারে সকল হিংসা-বিদ্বেষ ভেদাভেদ ধুয়ে মুছে যায়। সকলের প্রতি সকলের ভালবাসা, মমতা, সহমর্মিতা, সহযোগিতার কি এক অদৃশ্য বন্ধন! সবার গন্তব্য এক, চাওয়া-পাওয়া এক আল্লাহর সন্তুষ্টি। মহান মাবুদের দরবারে এসে বিশ্ব মুসলিম একাকার হয়ে যায়। এ হজ বিশ্ব মুসলিমকে একাত্মা করে দেয় বিশ্ব মুসলিম ভ্রাতৃত্ব ও বিশ্ব শান্তির স্বাদ জাগিয়ে দেয়।

Top